করোনায় লকডাউনে ঘরে যেভাবে ঈদের নামাজ পড়বেন

বর্তমানে করোনায় লকডাউনের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ঈদের সালাত ঘরে আদায় করার ব্যাপারে সার্বিক আলোচনা ও পর্যালোচনার পর ফিকহ কাউন্সিলের পক্ষ থেকে নিম্নবর্ণিত পরামর্শ প্রদান করা হয়:

করোনায় লকডাউনের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ঈদের সালাত ঘরে আদায় করার ব্যাপারে বিধান

الحمد لله والصلاة والسلام على رسول الله وعلى آله وصحبه ومن والاه، وبعد :

১- বর্তমান পরিস্থিতির কারণে ঘরের সদস্যদের নিয়ে বা একাকী থাকলে সেখানে একাকী ঈদের সালাত আদায় করবেন।

২- ঈদের সালাতের মতই সূর্য ওঠার পর থেকে যাওয়াল তথা সূর্য পশ্চিম আকাশে হেলে পড়ার আগেই বাসায় ঈদের সালাত পড়া শেষ করতে হবে।

৩- ঈদের সালাতের মতই তা শুধু দুই রাক‘আত পড়া হবে।

এক্ষেত্রে আনাস ইবন মালিক রাদিয়াল্লাহু ‘আনহুর হাদীসটি প্রনিধানযোগ্য। এ হাদীসে বলা হয়েছে:


((أنَّه إذا فاتته صلاةُ العيد جمعَ أهله وبنيه، ثم قامَ عبدُ الله بن أبي عتبة مولاه فصلَّى بهم ركعتين، يكبرُ فيهما، كصلاة أهل المصر وتكبيرهم))

“তাঁর যখন ঈদের সালাত ছুটে গেলো তখন তিনি তাঁর পরিবার ও সন্তানদেরকে একত্রিত করলেন, তারপর তাদের নিয়ে তাঁর দাস আব্দুল্লাহ ইবন আবী ‘উতবাহ দুই রাক‌‌‘আত সালাত আদায় করলেন, তাতে তাকবীর দিলেন, শহরবাসীগণের সালাত ও তাকবীরের ন্যায়”।

[ইমাম বুখারী তা‘লীক হিসেবে এ হাদীস বর্ণনা করেছেন, আবওয়াবুল ‘ঈদাইন, বাবু ইযা ফা-তাহুল ‘ঈদ ইয়ুসাল্লী রাকা‘আতাইন, ওয়া কাযালিকান-নিসাউ ওয়ামান কানা ফিলবুয়ূতি ওয়াল ক্বুরা ২/২৩; ৯৮৭ নং হাদীসের আগে; আর এ তা‘লীকটি ইবন আবী শাইবার আল-মুসান্নাফে এসেছে, হা/৫৮০৩; বাইহাক্বীর আস-সুনান আল-কুবরায় এসেছে, হা/৬২৩৭]

৪- ঈদের সালাতের মতই তাতে শব্দ করে কিরাআত পড়তে হবে।

৫- ঈদের সালাতের মতই সাধ্যমত অন্যান্য সুন্নাতগুলো যেমন গোসল, পরিচ্ছন্ন/নতুন কাপড় পরিধান, সুগন্ধি ব্যবহার, তাকবীর প্রদান ইত্যাদি পালন করে যেতে হবে।

৬- ঈদের সালাতের অতিরিক্ত তাকবীরগুলো প্রদান করবেন।

৭- বাসায় এ সালাত আদায়ের পর কোনো খুতবা দেয়ার প্রয়োজন নেই।

৮- ঈদের সালাতের মতই ঘরে এ সালাত আদায়ের জন্য কোনো আযান ও ইকামত নেই।

৯- ঈদের সালাতের মতই তাতে সুন্নাত হলো প্রথম রাকাতে সূরা ক্বাফ অথবা আল-আ‘লা পাঠ করা। আর দ্বিতীয় রাক‘আতে সূরা আল-কামার অথবা সূরা আল-গাশিয়া পাঠ করা।

১০- ঈদের সালাতের পর অভিবাদন হিসেবে ‘তাকাব্বালাল্লাহু মিননা ওয়ামিনকুম সালেহাল আ‘মাল’ (আল্লাহ আপনাদের ও আমাদের উত্তম কাজগুলো কবুল করুন) বিনিময় করবেন।

এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ ফিকহ কাউন্সিলের সদস্যবৃন্দ একমত পোষণ করেছেন।
وصلى الله وسلم على نبينا محمد وعلى آله وصحبه أجمعين.

সদস্যবৃন্দ :

ড. আবু বকর মুহাম্মাদ যাকারিয়া
ড. মুহাম্মাদ মানজুরে ইলাহী
ড. মুহাম্মাদ সাইফুল্লাহ আহমাদ কারীম
ড. মুহাম্মাদ নাসিরুদ্দীন
ড. মুহাম্মাদ ইমাম হোসাইন
শাইখ মুহাম্মাদ নুরুল্লাহ তা‘রীফ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *